Print Paper - news69bd.com - Publish Date : 11 February 2019

নিলামে কেউ কিনল না ‘হিটলারের পেইন্টিং’

নিলামে কেউ কিনল না ‘হিটলারের পেইন্টিং’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ১১ ফেব্রুয়ারি : জার্মানির নুরেমবার্গে ‘এডলফ হিটলারের’ আঁকা ৫টি পেইন্টিং নিলামে তোলা হলেও সেগুলোর একটিও বিক্রি হয়নি। এই নিলাম নিয়ে আয়োজক পক্ষ গত কয়েক মাস ধরে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে আসছিল। কিন্তু চলতি সপ্তাহে সেগুলো আগ্রহী ক্রেতাদের জন্য প্রদর্শনীতে আনলেও কেউ সাড়া দেয়নি। এই ঘটনায় ব্যাপক বিস্ময়ের সৃষ্টি হয়েছে নিলাম আয়োজনকারীদের মধ্যে। ওয়েডলার অকশন হাউজ নামের এই প্রতিষ্ঠানটি পেইন্টিংগুলোর প্রাথমিক মূল্য ধরেছিল ৫১ হাজার মার্কিন ডলার। এই মূল্যের চেয়ে বেশি অঙ্ক হেঁকে হেঁকে ক্রেতাদের প্রতিযোগিতা করার কথা ছিল।

প্রশ্ন উঠেছে, এই ‘মহামূল্যবান’ পেইন্টিংগুলোর এমন পরিণতি কেন হলো। অভিযোগ উঠেছে মানুষের সরল বিশ্বাসকে পুঁজি করে নিলাম হাউজটি আসলে কয়েকটি ভূয়া পেইন্টিং প্রদর্শনীতে এনেছে। এগুলো নাকি আদৌ হিটলারের আঁকা নয়। তাই ভিত্তিমূল্য ৫১ হাজার ডলার (প্রায় ৪৩ লাখ টাকা) দিয়েও ওসব পেইন্টিং কেনাকে অর্থের অপচয় হিসেবে ধরে নিয়েছে অনেকে। অন্যের পেইন্টিং হিটলারের নামে চালানোর এই জালিয়াতির খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় মেয়র ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ঘটনা যদি সত্যি হয় তবে আমি বলব ওয়েডলারের মতো বিখ্যাত নিলাম হাউজের কাছ থেকে এ ধরনের প্রতারণা আশা করা যায় না। এটা নিম্ন রুচির পরিচয়।

তার এই মন্তব্যের পর জার্মান পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে পেইন্টিংগুলো জব্দ করে। হিটলারের ব্যবহূত বলে কথিত জিনিসপত্রও বিক্রির জন্য নিলামে আনা হয়। এদের মধ্যে কিছু কিছু ছিল একদম চকচকে যা হিটলারের আমলের বলে আদৌ মনে হয়নি। মানুষের বিশ্বাস অর্জন করতে পেইন্টিং এবং অন্যান্য জিনিসগুলোর গায়ে হিটলারের ‘স্বাক্ষর’ করা হয়। এসব স্বাক্ষরও জাল বলে পুলিশ অভিযোগ পেয়েছে। তারা বলেছে, ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করা হয়েছে। এ ধরনের জালিয়াতি সহ্য করা হবে না।

এর আগেও গতমাসে একটি প্রতিষ্ঠান হিটলারের বলে কথিত কিছু সমগ্রী নিলামের তোলার ঘোষণা দিলে বার্লিন পুলিশ সন্দেহের বশে সেগুলো জব্দ করে।

এবার ব্যর্থ হলেও ওয়েডলার অকশন হাউজ ২০১৫ সালেও হিটলারের নামে ডজনখানেক পেইন্টিং নিলামে তুলে ৪ লাখ ইউরো (প্রায় ৪ কোটি টাকা) উপার্জন করেছিল। সেবার জার্মানি ছাড়াও চীন, ব্রাজিল, মধ্যপ্রাচ্যসহ কয়েকটি দেশ থেকে লোকজন নিলামে অংশ নিয়েছিল। তার আগের বছর তারা একই ধরনের নিলাম আয়োজন করে আয় করেছিল ১ লাখ ৩০ হাজার ইউরো।- বিবিসি