adimage

২২ মে ২০১৮
বিকাল ০৯:২০, মঙ্গলবার

প্রতিনিধি বাছাইয়ের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে : খালেদা

আপডেট  08:21 PM, জানুয়ারী ২৩ ২০১৮   Posted in : রাজনীতি    

প্রতিনিধিবাছাইয়েরঅধিকারকেড়েনেওয়াহয়েছে:খালেদা

ঢাকা, ২৪ জানুয়ারি : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি একতরফা ভোটারবিহীন নির্বাচন দিয়ে ভোটারদের পছন্দমতো প্রতিনিধি বাছাইয়ের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। ২৪ জানুয়ারি আমাদের জাতীয় ইতিহাসে এক অবিস্মরণীয় দিন।

১৯৬৯ সালের এই দিনে তদানীন্তন পাকিস্তানি ঔপনিবেশিক দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ছাত্র-জনতা দৃঢ় প্রতিরোধ গড়ে তোলে। গণআন্দোলন পরিণত হয়েছিল গণঅভ্যুত্থানে। এরই ধারাবাহিকতায় উন্মুক্ত হয় আমাদের স্বাধীনতা অর্জনের পথ। দিবসটিতে আমি স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকার নিশ্চিতে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানাই।

ঐতিহাসিক গণঅভ্যুত্থান দিবস উপলক্ষে গতকাল দেওয়া এক বাণীতে এসব কথা বলেন তিনি। এ ছাড়া দিবসটি উপলক্ষে ঊনসত্তরের গণআন্দোলনসহ সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনে আত্মদানকারী শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, গণঅভ্যুত্থানের মূল মানস বা মেজাজ ছিল স্বৈরতন্ত্র থেকে গণতন্ত্রে প্রত্যাবর্তন, বহুদলীয় রাজনৈতিক কার্যক্রম, বহুমত এবং চিন্তার চর্চা ও মানুষের নাগরিক স্বাধীনতা ফিরে পাওয়া।

তিনি আরও বলেন, আমাদের জাতীয় জীবনে ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের তাৎপর্য অপরিসীম। এ দিবস আমাদের গণতন্ত্র ও স্বাধিকার অর্জনের চেতনাকে শানিত করে এবং সব অন্যায়-অবিচার ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হতে আজও অনুপ্রেরণা জোগায়। কারণ এখন আবারও একদলীয় স্বেচ্ছাচারী শাসন কায়েম করা হয়েছে, গণতন্ত্রকে হত্যা করে বাক, ব্যক্তি ও চিন্তার স্বাধীনতা এখন গুম করে ফেলা হয়েছে।

এদিকে দিবসটি উপলক্ষে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও পৃথক বাণী দিয়েছেন। তিনি বলেন, ১৯৬৯ সালের এই দিনে ছাত্র-জনতার দৃঢ় ঐক্য দীর্ঘ আন্দোলনকে গণঅভ্যুত্থানে রূপ দিয়েছিল।



সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul