adimage

২৪ অক্টোবর ২০১৮
সকাল ০৬:৪৪, বুধবার

জাতীয় দলে ফিরতে মরিয়া আশরাফুল

আপডেট  06:53 PM, অগাস্ট ১০ ২০১৮   Posted in : স্পোর্টস    

জাতীয়দলেফিরতেমরিয়াআশরাফুল

স্পোর্টস ডেস্ক, ১১ আগস্ট : মোহাম্মদ আশরাফুল। বাংলাদেশ ক্রিকেটের বিবর্ণ একটি ফুল। গত পাঁচ বছর ধরে নিজের প্রতিভায় কোনরকম জল ছিটিয়ে রেখেছেন। এবার নতুন করে সৌরভ ছড়ানোর সুযোগ আসছে। সব নিষেধাজ্ঞা উঠে যাচ্ছে তার। চলতি মাসের ১৩ তারিখে আনুষ্ঠানিকভাবে মুক্ত হচ্ছেন আশরাফুল।

গত পাঁচ বছরের অপেক্ষার পালা শেষ হচ্ছে। এবার সুযোগটা কাজে লাগিয়ে জাতীয় দলে ফিরতে মরিয়া তিনি।

‘২০১৮ সালের ১৩ আগস্ট তারিখটির জন্য আমি দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষা করছি। নিষেধাজ্ঞা শুরু হওয়ার পাঁচ বছরেরও বেশি সময় হয়ে গেছে। যদিও গত দুই মৌসুমে আমি ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলেছি, কিন্তু এখন আমাকে জাতীয় দলে সুযোগ দিতে আর কোনো বাধা থাকছে না। আবারও বাংলাদেশের হয়ে খেলতে পারা আমার জীবনের সেরা অর্জন হবে।’ ক্রিকইনফোকে বলছিলেন আশরাফুল।

আশরাফুলের জন্য কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন করা যে সহজ নয় সেটা তিনি নিজেও জানেন। তবে বিরতির পর গত দুই মৌসুমে তার পারফরম্যান্সে কিছুটা আশাও দেখতে পারেন তিনি।

গত দুই মৌসুমে তার পারফরম্যান্সের হাইলাইটস বলতে গেলে ২০১৭-১৮ মৌসুমে লিস্ট-এ'তে তার পাঁচ সেঞ্চুরি। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে করা তার পাঁচ সেঞ্চুরি একটি রেকর্ডও। কোন লিস্ট-এ টুর্নামেন্টে পাঁচটি সেঞ্চুরি করা দ্বিতীয় ক্রিকেটার তিনি। ২০১৫-১৬ মৌসুমে মোমেন্টাম ওয়ানডে কাপে দক্ষিণ আফ্রিকার আলভারো পিটারসন পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছিলেন।

নিষেধাজ্ঞা উঠার পর ২৩টি লিস্ট-এ ম্যাচে আশরাফুলের গড় ৪৭.৬৩। তবে এ সময়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার পারফরম্যান্স খুব একটা আশাব্যঞ্জক নয়। এ সময়ে ১৩ ম্যাচে তার গড় ২১.৮৫।

তবে সবকিছুর উপরে যে বিষয়টি তার জন্য ইতিবাচক ছিলো সেটা হলো ক্রিকেটের সঙ্গে থাকা।

আশরাফুল বলেন, ‘ফেরার পর আমার প্রথম বছর ভালো ছিল না। তবে ২০১৭-১৮ মৌসুমে আমি ভালো করেছি। আগামী মৌসুমগুলোতে আমি আরও ভালো করার আশা রাখছি। এখন আমি পারফরম্যান্সের মাধ্যমে নির্বাচকদের বিবেচনায় থাকতে চাই। আমি ইতোমধ্যে এক মাসব্যাপী একটি ট্রেনিংয়ের মধ্যে থেকেছি এবং ১৫ আগস্টের পর থেকে আমি আগামী জাতীয় ক্রিকেট লিগকে সামনে রেখে প্রস্তুতি শুরু করব।’

২০১৩ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ম্যাচ ফিক্সিং এবং স্পট ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে আশরাফুলের নাম। পরের বছর বিপিএল এন্টি করাপশন ট্রাইব্যুনাল আশরাফুলকে ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে। সঙ্গে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। ওই বছর সেপ্টেম্বরে বিসিবির ডিসিপ্লিনারি প্যানেল ওই সাজা কমিয়ে পাঁচ বছর করে।

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul