adimage

২০ Jul ২০১৯
সকাল ১২:২৫, শনিবার

সান্ধ্যকালীন শিক্ষার্থীও হতে পারবেন ডাকসু প্রার্থী

আপডেট  03:23 PM, ফেব্রুয়ারী ০৩ ২০১৯   Posted in : শিক্ষাঙ্গন    

সান্ধ্যকালীনশিক্ষার্থীওহতেপারবেনডাকসুপ্রার্থী

ঢাকা, ৩ ফেব্রুয়ারি : একাধিক মাস্টার্স করা, সান্ধ্যকালীন ও অন্যান্য কোর্সের শিক্ষার্থীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) এবং হল সংসদ নির্বাচনে শর্ত সাপেক্ষে ভোটার ও প্রার্থী হতে পারবেন।

এক্ষেত্রে শর্ত হচ্ছে তাদেরকে অবশ্যই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে স্নাতক উত্তীর্ণ ও বয়স ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে।

গত ২৯ জানুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও তখন সংবাদ সম্মেলন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো. এনামউজ্জামান জানিয়েছিলেন, স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের পাশাপাশি এমফিলের শিক্ষার্থীরা, যাদের বয়সসীমা ৩০ বছরের মধ্যে তারাই ভোটার হতে পারবেন।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ের একাধিক শিক্ষক জানিয়েছেন, ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে স্নাতক সম্পন্ন করার পর কেউ যদি সান্ধ্যকালীন, একাধিক মাস্টার্স বা অন্য কোনো কোর্সে ভর্তি থাকেন, তাহলে নিয়মিত শিক্ষার্থীর পাশাপাশি তারাও ডাকসুর ভোটার ও প্রার্থী হতে পারবেন এমন সিদ্ধান্তই নেওয়া ওইদিন হয়েছিল সিন্ডিকেট সভায়।

তারা বলছেন, ‘জটিলতা তৈরি হতে পারে’ এমন শঙ্কা থেকেই ওইদিন তথ্যটি সিন্ডিকেট সভা শেষে সাংবাদিকদের জানানো হয়নি।

এ বিষয়ে ডাকসু নির্বাচনের প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. এস এম মাহফুজুর রহমান বলেন, “বিধানটা হচ্ছে, যারা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ছাত্র হয়েছিল, তারা চার বছরের আন্ডার গ্রাজুয়েট প্রোগ্রাম শেষ করে কন্টিনিউ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ে; এখন সেটা মাস্টার্স হতে পারে, মাস্টার্স একই বিভাগে না হয় অন্য বিভাগে হতে পারে, অথবা কেউ কেউ এমফিল করছে, অথবা অন্য প্রোগ্রাম যেগুলি আছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সেখানেও ভর্তি হতে পারে; এরাই ভোটার ও প্রার্থী হতে পারবে।

“অর্থাৎ প্রাথমিক শর্ত হচ্ছে- তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্তর্ভুক্তির ব্যাপারটা আমাদের ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমেই হতে হবে। তবে পিএইচডি কোর্সের শিক্ষার্থীরা ভোটার ও প্রার্থী হতে পারবে না এবং সবার বয়সই ৩০ এর মধ্যে হতে হবে।”

যে সান্ধ্যকালীন কোর্স নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ সমালোচনা করেছেন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বামপন্থী সংগঠনগুলো এসব কোর্স বন্ধের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে আসছে; শর্তপূরণ হলে সে কোর্সের শিক্ষার্থীরা ভোটার ও প্রার্থী হতে পারবেন কিনা জানতে চাইলে রিটার্নিং কর্মকর্তা ক্ষেপে যান।

তিনি বলেন, “সান্ধ্যকালীন আপনারা এখানে ঢোকাচ্ছেন কেন? এটা ঢোকানোর দরকার নাই।”

সার্বিক বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ বলেন, “ডাকসু নির্বাচনকে আমরা একটা একাডেমিক ক্যালেন্ডারের মধ্যে নিয়ে আসার চেষ্টা করেছে।

“অর্থাৎ বছরের একটি নির্দিষ্ট দিন ঠিক করব, ওইদিন যা কিছুই হোক ডাকসু নির্বাচন হবে। আমরা চাই সফলভাবে ডাকসু নির্বাচনটা সম্পন্ন করতে।”

ডাকসু নির্বাচনের জন্য আগামী ১১ মার্চ দিন ঠিক হয়েছে।

সকাল ৮টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলবে।

সর্বশেষ ডাকসু নির্বাচন হয়েছিল তিন দশক আগে; ১৯৯০ সালের পর আর নির্বাচন হয়নি। -নয়া দিগন্ত
 

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul