adimage

১৮ অগাস্ট ২০১৮
সকাল ১১:০২, শনিবার

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে পালিত হচ্ছে পবিত্র লাইলাতুল কদর

আপডেট  06:33 PM, Jun ১২ ২০১৮   Posted in : ধর্ম চিন্তা    

ধর্মীয়ভাবগাম্ভীর্যেপালিতহচ্ছেপবিত্রলাইলাতুলকদর

ঢাকা, ১৩ জুন : সারাদেশে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে পবিত্র লাইলাতুল কদরের রজনী পালিত হচ্চ্ছে। পবিত্র শবে কদর উপলক্ষে মসজিদে মসজিদে মুসল্লিদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

মঙ্গলবার মাগরিবের পর থেকেই শুরু হয়েছে শবে কদরের আনুষ্ঠানিকতা। চলবে সারারাত। ফজরের নামাজের পর মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এই আনুষ্ঠানিকতা।

যেসব মসজিদে খতমে তারাবি হচ্ছে সেখানে মঙ্গলবার খতম হবে। খতমে কোরআনকে কেন্দ্র করে মসজিদে মসজিদে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের আয়োজন করা হয়েছে। বিভিন্ন মসজিদে ওয়াজ মাহফিলও অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

পবিত্র শবে কদর উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।

‘হাজার মাসের চেয়েও উত্তম’ পবিত্র লাইলাতুল কদর সমগ্র মানবজাতির জন্য অত্যন্ত বরকত ও পুণ্যময় রজনী। পবিত্র ধর্মীয় গ্রন্থ আল কোরআন লাইলাতুল কদরে নাজিল হয়। তাই মুসলিম উম্মাহর কাছে শবে কদরের গুরুত্ব, তাৎপর্য ও ফজিলত অত্যধিক।

যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যময় পরিবেশে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা মঙ্গলবার সারা দেশে পবিত্র শবে কদর পালন করছে। এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।

এদিকে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মঙ্গলবার বাদ জোহর বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদে ‘পবিত্র লাইলাতুল কদরের গুরুত্ব ও তাৎপর্য’ শিরোনামে ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে ওয়াজ করেন রাজধানীর মিরপুরের বায়তুল মামুর জামে মসজিদের খতিব ড. মাওলানা আবদুল মুকিত আল আজহারী।

এছাড়া মঙ্গলবার দিবাগত রাতে তারাবির নামাজের পর রাত ১০টা ৪৫ মিনিটে ‘পবিত্র লাইলাতুল কদরের ফজিলত ও করণীয়’ শিরোনামে ওয়াজ, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা নেছারিয়া কামিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ড. মাওলানা কাফিলুদ্দীন সরকার সালেহী ও বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান পবিত্র লাইলাতুল কদরের ফজিলত ও করণীয় বিষয় নিয়ে বক্তব্য দেন।

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul