adimage

২৩ নভেম্বর ২০১৯
সকাল ০৮:২১, শনিবার

রোহিঙ্গা পরিস্থিতির অবনতির শঙ্কা জাতিসংঘের

আপডেট  02:10 AM, Jul ০৮ ২০১৯   Posted in : জাতীয়    

রোহিঙ্গাপরিস্থিতিরঅবনতিরশঙ্কাজাতিসংঘের

ঢাকা, ৮ জুলাই : বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গারা নিরাপদ খাদ্য ও বাসস্থানের ঝুঁকিতে রয়েছে জানিয়ে পরিস্থিতির অবনতির শঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘের দুই সংস্থা বিশ্ব খাদ্য প্রকল্প (ডব্লিউএফপি) ও শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর)।

ডব্লিউএফপির মুখপাত্র হার্ভ ভেরহোসেল গত শুক্রবার জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সম্প্রতি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গাদের জরুরি ভিত্তিতে খাদ্য সহায়তা দিতে হচ্ছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তা বন্ধ বা কমে গেলে পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি ঘটবে।

তিনি জানান, ৯ লাখ শরণার্থীর জন্য প্রতি মাসে প্রায় ২৪ কোটি মার্কিন ডলার ব্যয় করছে ডব্লিউএফপি। এছাড়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের কারণে কক্সবাজারে বন ধ্বংসের ক্ষতি কমাতে পুনর্বনায়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে ডব্লিউএফপি, জাতিসংঘ খাদ্য ও কৃষি সংস্থা এবং স্থানীয় কয়েকটি এনজিও।

২০০ হেক্টরেরও বেশি এলাকাজুড়ে অবস্থিত আশ্রয়শিবির এলাকায় এই বনায়ন করা হচ্ছে। এতে ভূমিধসের শঙ্কাও অনেকটা কমে আসবে। এ অবস্থায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ত্রাণ সহায়তা বজায় রাখার আহ্বান জানান তিনি।

একই দিন জেনেভায় জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা জানায়, সম্প্রতি প্রবল বর্ষণে ভূমিধসের ফলে কক্সবাজারে আশ্রয় শিবিরের ২৭৩টি ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ২ হাজার ১৩৭ শরণার্থীকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। আগামী চার মাস বৃষ্টিপাত থাকতে পারে।

এ অবস্থায় আশ্রয় শিবিরের ক্ষতিগ্রস্ত ঘর ও অন্যান্য স্থাপনা পুনর্নির্মাণ এবং জরুরি ত্রাণ সহায়তার জন্য অতিরিক্ত আর্থিক সহায়তা প্রয়োজন। বর্ষা মৌসুমকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে রাস্তাঘাট ও আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে সংস্থাটি।

মালয়েশীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন : উখিয়া প্রতিনিধি জানান, উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাতো সাইফুদ্দিন বিন আবদুল্লাহ। রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় কক্সবাজারে পৌঁছে উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের জন্য মালয়েশিয়া সরকারের অর্থায়নে নির্মিত ফিল্ড হসপিটাল পরিদর্শনে যান তিনি। সেখান থেকে উখিয়ার বালুখালী ও থাইংখালীর জামতলী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন।

সেখানে রোহিঙ্গাদের জন্য মালয়েশিয়া সরকারের অনুদানে গড়ে ওঠা ত্রাণ কেন্দ্র, স্কুলসহ বিভিন্ন কার্যক্রম ঘুরে দেখেন। সেখানে তিনি রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশুদের সঙ্গে কথা বলেন।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নিকারুজ্জামান চৌধুরী জানান, সকালে মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা ও বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে বিকাল ৩টায় কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে ক্যাম্প ত্যাগ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনের আমন্ত্রণে মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাতো সাইফুদ্দিন বিন আবদুল্লাহ তিন দিনের সফরে ৬ জুলাই ঢাকায় আসেন। -যুগান্তর

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul