adimage

১২ নভেম্বর ২০১৯
বিকাল ০৪:৩৬, মঙ্গলবার

গাজীপুরে গ্যাসের আগুনে স্বামী-স্ত্রী ও দুই শিশু সন্তানের মৃত্যু

আপডেট  03:33 AM, মে ২৩ ২০১৯   Posted in : জাতীয় ঢাকা    

গাজীপুরেগ্যাসেরআগুনেস্বামী-স্ত্রীওদুইশিশুসন্তানেরমৃত্যু

গাজীপুর, ২৩ মে : রাত তখন ১০টা। আট বছরের বায়েজিদ ও চার বছরের ফাতেমা ঘুমায়নি তখনও। মায়ের জন্য অপেক্ষা করছিল শিশু দুটি। মা মনিরা বাসায় ফিরে রান্না করবেন, তারপর খেয়ে ঘুমাবে তারা। ডিউটি শেষে বাসায় ফিরে তড়িঘড়ি করে রাতে খাওয়ার জন্য সিলিন্ডার গ্যাসের চুলায় ভাত রান্না শুরু করেন পোশাক শ্রমিক মনিরা আক্তার। পাশেই গল্প করছিলেন মনিরার স্বামী শাহ আলম ও তাদের দুই সন্তান।

এ অবস্থায় হঠাৎ করে গ্যাস সিলিন্ডার ছিদ্র হয়ে আগুন ধরে যায়। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছোট্ট ঘরটির ভেতরে থাকা আসবাবে ছড়িয়ে দাউ দাউ করে জ্বলতে থাকে। তারা কেউ আর বের হতে পারেননি। ঘটনাস্থলেই দগ্ধ হয়ে প্রাণ হারান শাহ আলম, তার স্ত্রী মনিরা আর আদরের সন্তান বায়েজিদ ও ফাতেমা।

বুধবার রাতে গাজীপুর মহানগরের ইসলামপুর হাজী মার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, পটুয়াখালীর বাউফল এলাকার শাহ আলম স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে হাজী মার্কেট এলাকার একটি শ্রমিক কলোনিতে ভাড়া থাকতেন। স্বামী-স্ত্রী দু'জনই রেনেসাঁ নামে একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন। কারখানা থেকে ফিরে মনিরা রাতের খাবার রান্না করার সময় গ্যাস সিলিন্ডার ছিদ্র হয়ে ঘরের ভেতরে আগুন ধরে যায়।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক আক্তারুজ্জামান জানান, বসতঘরের ভেতরেই সিলিন্ডার রাখা ছিল। বসতঘরেই রান্না হতো। হঠাৎ করে সিলিন্ডারটি ছিদ্র হয়ে আগুন ধরে একই পরিবারের চারজনের মৃত্যু হয়।

মহানগরের বাসন থানার ওসি একেএম কাউসার চৌধুরী বলেন, রাত সাড়ে ১১টার দিকে দগ্ধ স্বামী, স্ত্রী ও তাদের দুই সন্তানের লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়।

ফায়ার সার্ভিস কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার কামরুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে বলেন, ইসলামপুরের একটি বাসায় গ্যাসের লিকেজ থেকে আগুন লাগার খবর পেয়ে সেখানে যান ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। রাত ১২টার আগেই আগুন নেভানো সম্ভব হয়। তবে আগুনের প্রকৃত কারণ ও ক্ষতির পরিমাণ তদন্তের পর বলা যাবে। চারজনের মৃত্যুর খবরও নিশ্চিত করেন ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা।

গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর বলেন, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে লাশ দাফনের জন্য প্রাথমিকভাবে ২০ হাজার টাকা দেওয়া হবে। ওই এলাকা থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক ও গাজীপুর সিটি মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম এ ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। -সমকাল

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul