adimage

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বিকাল ০৩:০৪, বুধবার

বান্দরবানে পাহাড় ধসে নারীসহ ৪ জনের মৃত্যু

আপডেট  01:51 PM, Jul ০৩ ২০১৮   Posted in : চট্টগ্রাম    

বান্দরবানেপাহাড়ধসেনারীসহ৪জনেরমৃত্যু

বান্দরবান, ৩ জুলাই : পার্বত্য জেলা বান্দরবানে টানা বর্ষণে পৃথক পাহাড়ধসের ঘটনায় একই পরিবারের তিনজনসহ ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৩ জুলাই) সকাল ও দুপুরের দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে শহরের প্রধান সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় বান্দরবানের সঙ্গে সারা দেশের সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

মৃতরা হলো- কালাঘাটা বড়ুয়ার টেক এলাকার প্রতিমা রানি দে (৪০) এবং লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের কালাইয়া পাড়ার মো. হানিফ। অন্যদের নাম এখনো জানা যায় নি। রানি দে কালাঘাটা তিন নম্বর ওয়ার্ডের মিলন দাসের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বান্দরবান সদর থানার ওসি গোলাম সারোয়ার জানান, প্রবল বৃষ্টিতে দুপুর ১২টার দিকে কালাঘাটায় মিলনের ঘরের এক পাশে পাহাড় ধসে পড়ে। এ সময় মিলনের স্ত্রী প্রতিমা রানী মাটি চাপা পড়েন ।

খবর পেয়ে স্থানীয়রা এবং ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা গিয়ে দুপুর ১টার দিকে লাশ উদ্ধার করে। প্রতিমা রানির লাশ সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি জানিয়েছেন, উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দুর্গমে অবস্থিত এই কালাইয়া পাড়া। মঙ্গলবার দুপুরে মুষলধারে বৃষ্টি হলে পাহাড় ধসের একই পরিবারে তিনজন নিহত হয়। তিনি ঘটনাস্থলে রওয়ানা হয়েছেন। স্থানীয় মেম্বার ও এলাকার লোকজন উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছে।

জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন কালাঘাটা এলাকা পরিদর্শন করে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদ স্থানে সরে যেতে বলেছেন।

উল্লেখ্য, বৃক্ষ নিধন আর নিয়ম ভেঙে পাহাড় কাটার কারণে প্রতি বছরই দেশের পাহাড়ি এলাকাগুলোতে পাহাড় ধসে হতাহতের ঘটনা ঘটছে। গতবছর ১১ থেকে ১৩ জুন ভারি বর্ষণের ফলে চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, বান্দরবান, কক্সবাজার, খাগড়াছড়ি ও মৌলভীবাজার জেলায় অন্তত ১৫৬ জনের মৃত্যু হয়।  এর মধ্যে বান্দরবানে মৃত্যু হয় ৬ জনের।

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul