adimage

২১ অক্টোবর ২০১৯
বিকাল ১০:২৫, সোমবার

গ্রিসের নির্বাচনে ক্ষমতাসীনদের পরাজয়

আপডেট  01:59 AM, Jul ০৯ ২০১৯   Posted in : আন্তর্জাতিক    

গ্রিসেরনির্বাচনেক্ষমতাসীনদেরপরাজয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ৯ জুলাই : গ্রিসের সাধারণ নির্বাচনে হেরে গেছে ক্ষমতাসীন সিরিজা পার্টি। জিতেছে মধ্য-ডানপন্থী বিরোধী দল নিউ ডেমোক্র্যাসি।

নিউ ডেমোক্র্যাসির প্রেসিডেন্ট মিতসোতাকিস প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথও নিয়েছেন। তিনি গ্রিসের অতীত গৌরব ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তিন বছর ধরে তিনি দলটির নেতৃত্বে আছেন।

গত বরিবারের ভোটে নির্বাচনে ৩৯ দশমিক আট শতাংশ ভোটারের সমর্থন পাওয়ায় পার্লামেন্টে মিতসোতাকিসের দল অতিরিক্ত ৫০টি আসন পাবে। এ কারণে পার্লামেন্টে তারা নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে। পার্লামেন্টে ৩০০ জন নির্বাচিত সদস্য চার বছরের জন্য দেশ পরিচালনা করে।

বর্তমান প্রধানমন্ত্রী অ্যালেক্সিস সিপ্রাস নির্বাচনের ফলাফল মেনে নিয়েছেন। তিনি মিতসোতাকিসকে ফোন করে অভিনন্দনও জানান। সংবাদ সম্মেলনে জনগণের রায় মেনে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি ২০০৪ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত মধ্যবর্তী মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

নির্বাচনে জয়ী হওয়ার এক দিন পর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মিতসোতাকিস শপথ গ্রহণ করেন। রাজধানী এথেন্সে রাষ্ট্রপতির বাসভবনে অনুষ্ঠিত শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে তাঁর স্ত্রী ও তিন সন্তান শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ভোটারদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচিত সরকারের সদস্যরা জাতীয় স্বার্থের বিষয়ে সম্পূর্ণ অবগত আছে। প্রত্যেকে জানে যে তার জন্য কঠিন সময় অপেক্ষা করছে। ভবিষ্যতের কঠিন সময় উত্তরণে জনগণের অনুপ্রেরণা আমাদের শক্তি হিসেবে কাজ করবে।’

গ্রিসে ১৭ বছরের নাগরিক ভোট দেওয়ার অধিকার লাভ করে। ১৯৩০ সাল থেকে নারীরা ভোটাধিকার দেওয়ার অধিকার লাভ করে।

নির্বাচনে গত কয়েক দশকের মধ্যে সর্বনিম্ন ৫৭ শতাংশ ভোট পড়েছে। এবার ভোটের দিন ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা ছিল। প্রচণ্ড গরমের কারণে অনেক ভোটারই বাড়ি থেকে বের হননি। অনেকে সমুদ্র গিয়ে কিছুটা তাপদাহ থেকে রক্ষার চেষ্টা করেন।

গ্রিসে প্রত্যেক নাগরিকের ভোট দেয়া বাধ্যতামূলক। কিন্তু নির্বাচনে এ আইনের প্রয়োগ করা হয় না।

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul