adimage

২১ Jul ২০১৯
বিকাল ১১:১৬, রবিবার

প্রিয়াংকা আলোয় ঝলমলে কংগ্রেস নেতাকর্মীরা

আপডেট  03:12 AM, ফেব্রুয়ারী ০৮ ২০১৯   Posted in : আন্তর্জাতিক    

প্রিয়াংকাআলোয়ঝলমলেকংগ্রেসনেতাকর্মীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ৮ ফেব্রুয়ারি : প্রিয়াংকা গান্ধী অল ইন্ডিয়া কংগ্রেস কমিটির (এআইসিসি) সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব বুঝে নিয়েছেন। বুধবার উত্তরপ্রদেশে গিয়েই নেতাকর্মীদের কাছ থেকে দলের ভেতরকার খোঁজখবর নেন। তার আগমনে প্রাণ ফিরে পেয়েছে শত বছরের পুরনো কংগ্রেস ভবন। প্রিয়াংকা ‘আলোয়’ ঝলমলে হয়ে উঠেছেন কর্মী-সমর্থকরা।

এদিন ভিড়ের মধ্যে প্রিয়াংকার ঘরে ঢোকার চেষ্টা করছিলেন অমেঠী থেকে আসা দলের প্রবীণ কর্মী বুগ্গি মিয়া। তাকে দেখে নিরাপত্তারক্ষীদের প্রিয়াংকা বললেন, ‘ওনাকে আসতে দিন। আমাকে সেই ছোট্ট বয়স থেকে দেখেছেন।’

পেছনে তখন স্লোগান উঠছে, ‘প্রিয়াংকা গান্ধী আয়ি হ্যায়, নয়ী রোশনি লায়ি হ্যায়!’ (প্রিয়াংকা গান্ধী এসেছেন, নতুন আলো জ্বালিয়ে দিয়েছেন)। খবর এনডিটিভির।

স্বামী রবার্ট ভদ্রকে ইডি (এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট) অফিসে নামিয়ে আচমকাই কংগ্রেস দফতরে যান প্রিয়াংকা। অতীতে বহুবার গেছেন। এবার পা দিলেন নেত্রী হিসেবে। বুধবার বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত রবার্ট ভদ্রকে ম্যারাথন জেরার পর বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ফের জেরা শুরু হয়েছে।

লন্ডনে বেআইনি সম্পত্তি রাখার অভিযোগ করেছেন তদন্তকারীরা। এর আগের দিন কংগ্রেস দফতরে পা রেখেই প্রিয়াংকা বললেন, ‘স্বামী-পরিবারের পাশেই আছি। ভাই রাহুল গান্ধীকে ‘রাহুলজি’ সম্বোধন করে জানালেন, ‘রাহুলজি যে সুযোগ দিয়েছেন, তাতে আমি কৃতজ্ঞ।’

এআইসিসি কার্যালয়ে রাহুলের পাশের কক্ষটি বরাদ্দ করা হয় পূর্ব উত্তরপ্রদেশের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াংকার জন্য। উল্টো দিকের কক্ষ দেয়া হয়েছে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের ভারপ্রাপ্ত জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াকে। সকাল থেকে এআইসিসি দফতর হয়ে উঠেছিল উত্তরপ্রদেশ থেকে আসা দলের কর্মীদের কেন্দ্রস্থল। বিকালে প্রিয়াংকা আসতেই উপচে পড়ল ভিড়।

ঠিক সেই সময়ে এআইসিসি’র একটি কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করছিলেন অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি। কিন্তু বাইরে প্রিয়াংকা-রব উঠতেই নিমেষে ফাঁকা হয়ে গেল সেই কক্ষ। বাইরে বের হয়ে হামলে পড়ল প্রিয়াংকাকে দেখার জন্য, সেলফি তোলার জন্য।

বিশেষ নিরাপত্তারক্ষীদের থামিয়ে দিয়ে সমর্থকদের আবদার পূরণ করলেন কংগ্রেস নেত্রী। সবার সঙ্গে ছবি তুললেন।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী মোদিকে ‘ভীতু’ অ্যাখ্যা দিয়ে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেছেন, ‘চৌকিদার এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। পাঁচ বছর ধরে আমি তার স্বভাব চিনেছি। তিনি একজন ভীতু। যখনই তার বিরুদ্ধে দাঁড়ায়, তখন তিনি পালিয়ে বেড়ান।’ দলের সংখ্যালঘু শাখার নেতাকর্মীদের সঙ্গে এক বৈঠকে এ কথা বলেন রাহুল।

বৈঠকে জাতীয় নিরাপত্তা, রাফাল অস্ত্র ও অর্থনীতি বিষয়ে বিতর্কের জন্য মোদিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন তিনি। কংগ্রেস সভাপতি বলেন, ‘ভয় মোদির চেহারায় লেখা। দেশে কিভাবে বিভাজনের রাজনীতি পরিচালনা করা যায় এটা ভালোই বোঝেন তিনি। ভারতে তার ভাবমূর্তি শেষ হয়ে গেছে।’ -যুগান্তর

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul