adimage

২৫ মে ২০১৮
সকাল ০৯:১২, শুক্রবার

মালদ্বীপে টিভি চ্যানেল বন্ধ, সাংবাদিকতায় কঠোর বিধি নিষেধ

আপডেট  08:47 PM, ফেব্রুয়ারী ১২ ২০১৮   Posted in : আন্তর্জাতিক মিডিয়া    

মালদ্বীপেটিভিচ্যানেলবন্ধ,সাংবাদিকতায়কঠোরবিধিনিষেধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ১২ ফেব্রুয়ারি : মালদ্বীপের ক্ষমতাসীন আবদুল্লাহ ইয়ামিন আবদুল গাইয়ুম সরকার দমন-পীড়নের মাত্রা আরো এক দফা বাড়িয়েছে। জরুরি অবস্থা জারি ও বিচার বিভাগের কণ্ঠরোধের পর এবার তারা সংবাদ মাধ্যমের এপর কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। টিভি চ্যানেল ‘রাজ্যে টিভি’র সব সম্প্রচার বৃহস্পতিবার থেকে বন্ধ রয়েছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো জানায়, সোমবার থেকে সংবাদ মাধ্যমের ওপর বিধিনিষেধের মাত্রা আরো বাড়ানো হয়েছে। এদিন দেশটির পুলিশ বিভাগ মিডিয়াকে‘ ভালোভাবে যাচাই না করে’ সংবাদ প্রকাশ ও প্রচার করা থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ জারি করেছে। পাশাপাশি তারা একথাও জানিয়ে দিয়েছে, পুলিশের কাছ থেকে ছাড়পত্র না নিয়ে কোনো সংবাদ প্রচার বা প্রকাশ করা যাবে না।

পুলিশের কাছ থেকে সত্যতা যাচাই ও পুলিশি ছাড়পত্র না নিয়ে সংবাদ প্রকাশ বা প্রচার করা হলে তা দেশটিতে কথিত সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তদন্তে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করতে পারে। এমনটি করা হলে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এহেন 'ষড়যন্ত্র ঠেকাতেই সরকারকে বাধ্য হয়ে জরুরি অবস্থা জারি করতে হয়েছে' বলেও উল্লেখ করে পুলিশ বিভাগ।

সোমবার জারি করা পুলিশের একটি বিবৃতির ভাষা ছিল এরকম: ‘মালদ্বীপের পুলিশ সার্ভিস সংবাদমাধ্যমকে এই মর্মে অনুরোধ জানাচ্ছে যে, তারা যেন ভুয়া তথ্য না ছড়ান, পুলিশের কাছ থেকে সত্যতা যাচাই না করে কোনো তথ্য বা সংবাদ যেন প্রচার ও প্রকাশ না করেন।

টিভি চ্যানেল ‘রাজ্যে টিভি’ (Raajje TV) অভিযোগ করেছে, সশস্ত্র বাহিনীর লোকেরা এসে মালদ্বীপের ব্রডকাস্টিং কমিশনের অফিস দখল করে নিয়েছে। তারা ‘জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে’ সংবাদ মাধ্যমের বিরুদ্ধে প্রয়োজনে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুমকি ধমকি দিয়ে যাচ্ছে।

সাবেক প্রেসিডেন্ট গাইয়ুম, প্রধান বিচারপতিসহ আটক দুই বিচারপতি এবং বিরোধী দলীয় নেতাদের এখনো জেলে অন্তরীণ রাখা হয়েছে। তাদের নামে দুর্নীতি, ঘুষ গ্রহণসহ নানা ফৌজদারি অভিযোগে মামলা দেওয়া অব্যাহত আছে।


সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul