adimage

২২ এপ্রিল ২০১৮
বিকাল ১০:১১, রবিবার

ভোগান্তির আরেক নাম বান্দুরা ব্রিজ

আপডেট  10:54 AM, নভেম্বর ২১ ২০১৭   Posted in : অর্থ ও বাণিজ্য ঢাকা কৌতুক    

ভোগান্তিরআরেকনামবান্দুরাব্রিজ

ইমরান হোসেন সুজন, নবাবগঞ্জ:
ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি সরু ব্রিজের কারনে ভোগান্তিতে পড়েছে স্থানীয় জনগণ। সবচেয়ে বিপাকে বান্দুরা ইউনিয়নসহ পশ্চিমাঞ্চলের ৫টি ইউনিয়নের জনগণ। 
জানা যায়, উপজেলার বান্দুরা, নয়নশ্রী, বারুয়াখালী, জয়কৃষ্ণপুর ও শিকারীপাড়া ইউনিয়নের লোকজন ছাড়াও পার্শ্ববর্তী মানিকগঞ্জ জেলার লোকজনও এই পথ দিয়ে ঢাকায় যাতায়াত করে থাকে। কিন্তু তাদের জন্য ভোগান্তির নাম বান্দুরা ব্রিজ। ব্রিজটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জানার পরও দায়িত্বপ্রাপ্ত লোকজন দুর্নীতি ও গাফলতি করে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে বলে মনে করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

ব্রিজটি এতই সরু যে প্রতিদিনই দীর্ঘ যানজট লেগে থাকে ব্রিজটিতে। ব্রিজটি দিয়ে এক সাথে দুইটি গাড়ি যাতায়াত করতে পারে না। দুইটি গাড়ি একসাথে পাড়াপাড়ের চেষ্টা করলেই বেঁধে যায় যানজট। প্রতিদিন ঘন্টার পর ঘন্টা গাড়িগুলো আটকে থাকে ব্রিজের উপর। আর যখন যানজট সৃষ্টি হয় তখন পায়ে হেঁটেও লোকজন যাতায়াত করতে পারে না। তখন সবচেয়ে বিপাকে পড়ে স্কুল ও কলেজগামী শিক্ষার্থীরা। 

বান্দুরা হলিক্রশের শিক্ষার্থী প্রতিবন্ধি সবুজ বলেন, আমাকে প্রতিদিন বান্দুরা ব্রিজ দিয়ে স্কুলে যাতায়াত করতে হয়। কিন্তু বেশিরভাগ স্কুলের সময়েই যানজট সৃষ্টি হয়। যানজটের সময় পায়ে হেঁটেও ব্রিজ পাড় হওয়া যায় না। ফলে স্কুলে যেতে আমার প্রায় সময়েই্ দেরি হয়ে যায়।

মানিকগঞ্জের হরিরামপুর কান্টাপাড়ার আসাদ উল্লাহ বলেন, নয়াবাজার আমার নিজের প্রেস রয়েছে। আগে মানিকগঞ্জ সদর হয়ে ঢাকা যাতায়াত করতাম। কিন্তু গাবতলি যানজটের কারনে এখন নবাবগঞ্জ দিয়ে যাতায়াত করি। মাঝে মাঝে বান্দুরা ব্রিজের এসে ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থাকতে হয়। তার আমাদের জন্য কষ্ট দায়ক। ব্রিজটি খুব সরু। এটা ভেঙ্গে চার লেনের ব্রিজ করা উচিত। তাহলে আর যানজটের সৃষ্টি হবে না।

বান্দুরা বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী আব্দুল রহমান প্রতিবেদককে ব্রিজের পিলার দেখিয়ে বলেন, যেকোন ব্রিজের পিলারের বাহিরে মূল ব্রিজ থাকে। কিন্তু বান্দুরা ব্রিজ উল্টো। দেখুন পিলার বাহিরে রয়েছে। আসলে ব্রিজটির প্রস্থ আরো বেশি হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু কি কারনে ব্রিজটি এত সরু হয়েছে তা সবাই জানে। আসলে টাকার কাছে সবাই বিক্রি হয়ে যায়।

সর্বাধিক পঠিত

Comments

এই পেইজের আরও খবর

মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন

nazrul